ইসলাম ও গণতন্ত্রের মূলনীতির মধ্যে কোন বিরোধ নেই

পিটিভির মুখোমুখী জাভেদ আহমাদ ঘামিদি [এটি মূলত পাকিস্তানের বহুল আলোচিত ইসলামি চিন্তাবিদ, আল বায়ান তাফসিরের লেখক, পাকিস্তান সরকারের কাউন্সিল অফ ইডীওলজি এর সাবেক সদস্য, আল মাওরিদ ফাউন্ডেশনের চেয়ারপার্সন জাভেদ আহমাদ ঘামিদি সাহেবের পাকিস্তানের বহুল জনপ্রিয় টিভি চ্যানেল পিটিভি-কে দেওয়া একক … বিস্তারিত

চার বিবাহ সমস্যা ও একটি মানহাজের অনুসন্ধান

ভূমিকা ইসলামের চার বিবাহ নিয়ে অনেক কথাবার্তা। ইদানীং একজন আলেমের অতিরিক্ত দুটো মানবিক বিয়ে সামনে আসায় প্রাতিষ্ঠানিক প্রায় পনের-শো বছরের চার বিয়ের বিধান চ্যালেঞ্জ হতে দেখা যাচ্ছে। বলা হচ্ছে ইসলামে আদপে চার বিয়ের সার্বিক কোন বিধান নেই, যে চার বিয়ের … বিস্তারিত

ইসলাম বিশ্বাসের স্বাধীনতা দিতে আসে নি ― শাইখ আল-ফাওযান

[এই পোস্টের কথাগুলো শাইখ সালেহ আল ফাওযানের। শাইখ আল-ফাওযান সৌদি আরবের একজন বড় ফকীহ, মক্কার আল-মুকাররামার ফিকহ একাডেমির সদস্য, সৌদির বয়োজ্যেষ্ঠ উলামা সংগঠন “হাইআতু কিবারিল উলামায়িস সুউদিয়্যাহ” এর সদস্য, প্রিন্স মি‘তিব বিন আব্দুল-আজিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক। শাইখ আল-ফাওযানকে এক ব্যক্তি বিশ্বাসের … বিস্তারিত

নবুওয়্যাত ও রিসালাত

নবুওয়্যাত ও রিসালাতের অলঙ্কারে বিভূষিত হবার এক মিনিট আগেও যিনি নবী হবেন তার জানা থাকেনা। মাওলানা আমিন এহসান ইসলাহী যথার্থই বলেছিলেন যে “রিসালাত ও নবুয়াত হচ্ছে মোহাব্বতে রব্বানী” বা আল্লাহর ভালোবাসা ও অনুগ্রহ এবং তা সম্পূর্ণ আল্লাহর এখতিয়ার যখন যাকে চান আল্লাহ … বিস্তারিত

শুভ্র হৃদয় ও অনন্ত জীবনের চুড়ান্ত সফলতা

(Repost) হৃদয় বা হার্ট (আরবিতে “ক্বল্ব বা বহুবচনে কুলুব” ) নিয়ে চিন্তা করতে গিয়ে মনে প্রশ্ন জাগলো মানব দেহের রুহ আসলে কি?  পবিত্র কোরআনে দেখি এ প্রশ্নের উত্তর জানতে আমাদের নবীজিকে যখন প্রশ্ন করা হয়েছিল তখন আল্লাহ পাক পরিস্কার জানিয়ে … বিস্তারিত

ইসলামে মুনাফিক

‘মুনাফিকুন’ এক প্রকার কীটের নাম। এই কীট সৌদি আরবের মরুভূমিতে দু’মুখ ওয়ালা গর্ত তৈরী করে  সেই গর্তে এরা বাস করে, যাতে এক মুখ আক্রান্ত হলে আরেক মুখ দিয়ে অনায়াসে বেরিয়ে যেতে পারে। মানুষ মুনাফিকের সাথে হুবহু মিল। মুনাফিকরাও দু’মুখ ওয়ালা চেহারা বিশিষ্ট। … বিস্তারিত

আল্লাহর আদেশ আর আমাদের কৌশল

মানুষ সৃষ্টির সেরা, আশরাফুল মাখলুকাত। মহান রাব্বুল আলামিন আঠার হাজার মাখলুকাতের মধ্যে সর্ব শ্রেষ্ঠ করে সৃষ্টি করেছেন মানুষকে। তিনি মানব সৃষ্টির অনেক অনেক আগে জ্বীন জাতিকে সৃষ্টি করেছেন  আগুনের শিখা থেকে, তাইতো তারা মানুষের দৃষ্টির বাইরে। আল্লাহ সোবহানাল্লাহ তায়ালা আল … বিস্তারিত

প্যারাডক্সিক্যাল_সাজিদ (তৃতীয় পর্ব)

⭐ আল-কুরআন কি মানব-রচিত? বিরাট আলিশান একটি বাড়ি। মােগল আমলের সম্রাটেরা যেরকম বাড়ি বানাত, অনেকটাই সেরকম। বাড়ির সামনে দৃষ্টিনন্দন একটি ফুলের বাগান। বাগানের মাঝে ছােট ছােট কৃত্রিম ঝরনা আছে। এই বাড়ির মালিকের রুচিবােধের প্রশংসা করতেই হয়। ঝঞাট ঢাকা শহরের মধ্যে … বিস্তারিত

মুসলমান

  আমরা মুসলমান। আমরা সেই মুসলমান। যারা একদা পৃথিবীর বুকে শির চির উন্নত করে তুলেছিলো –  আমরা তাদেরই বংশধর – আমরা সেই মুসলিম। যে মুসলিমের হুঙ্কারে থর্‌ থর্‌ করে কাঁপতো ব্রক্ষ্মান্ড,  ভীত   সন্ত্রস্থ হতো ধরণীর শাসক-মন্ডলী, শির নোয়াত আরবের দুর্দন্ত … বিস্তারিত

কোরআনকে বুঝা নিয়ে কিছু কথা

সাধারণ দৃষ্টিতে কোন পাঠক কুরআন খুললে হয়তবা দেখতে পাবে এতে অনেক রিপিটেশন, বারবার একই ধরণের কথা ও আখেরাতের ভয় ভীতি, কিছু নির্দেশ কিছু কাহিনী, বিশ্ব সৃষ্টি ও মানব সৃষ্টি সম্পর্কে অতি সংক্ষিপ্ত কিছু তথ্য বা কথা। কিংবা সে দেখবে গতানুগতিক … বিস্তারিত

হাদীস শাস্ত্রের কতিপয় পরিভাষা

হাদীস আরবী শব্দ। আরবী অভিধান ও কোরআনের ব্যবহার অনুযায়ী ‘হাদীস’ শব্দের অর্থ- কথা, বাণী, বার্তা, সংবাদ, বিষয়, খবর ও ব্যাপার ইত্যাদি। ‘হাদীস’ শুধুমাত্র একটি আভিধানিক শব্দ নয়। মূলতঃ ‘হাদীস’ শব্দটি ইসলামের এক বিশেষ পরিভাষা। সে অনুযায়ী রাসূল (স.)-এর কথা, কাজের … বিস্তারিত

কোরানের আলোকে ইসলামের ইতিহাস (১)

ফেরাউনের সন্ধানে যারা সত্যকে সত্যের মানদন্ড না ভেবে প্রসিদ্ধ লোকের কথাকে সত্যের মানদন্ড ভাবে , তাদের পক্ষে সত্য জানা কষ্টকর••• জেরাল্ডম্যসি , মিশর বিশেষজ্ঞ।  ভূমিকা•••• আমরা মুসলমানেরা বিশ্বাস করি কোরান আল্লাহর বই। আল্লাহর বাণী যেহেতু মিথ্যা হতে পারেনা , সে কারনে এই বইয়ে কোরানের আয়াতকে আমরা সত্যের মানদন্ড ভেবে নিয়ে ইসলামের সত্য ইতিহাস জানার চেষ্টা করব। কোরানের শুরু থেকে মানুষকে যে জ্ঞান শেখানো হয়েছে তার একটি হলো , মানুষ ছাড়াও আরো সত্বা বা শক্তি আছে যারা মানুষের মতোই বুদ্ধিমান, অনুভূতিসম্পন্ন ও স্বাধীন ইচ্ছার অধিকারী।এমনি একটি সত্বা , যাকে আমরা শয়তান বলে জানি, জেনে শুনে অহঙ্কার বশত আল্লাহর উপস্থিতীতে আল্লাহর আদেশ অমান্য করার ধৃষ্ঠতা দেখিয়েছিল। {সে বললঃ  দেখুন তো, ইনিই সে ব্যক্তি, যাকে আপনি আমার চাইতেও  উচ্চ মর্যাদা দিয়ে দিয়েছেন। ।যদি আপনি আমাকে কেয়ামত দিবস পর্যন্তসময় দেন, তবে আমি সামান্য সংখ্যক ছাড়া তার বংশধরদেরকে সমূলে নষ্ট করে দেব।১৭:৬২}   এটা পরিস্কার যে, আদমের বংশধরদের সমূলে বিনষ্ট করে দেয়ার শয়তানের এই শপথকে খাটো করে দেখা মানব সমাজের উচিৎ হবে না। {সে বলল, আপনার ইযযতের কসম, আমি অবশ্যই তাদের সবাইকে বিপথগামী করে দেব। ৩৩:৮২}  শয়তান যে ফাকা বুলি আওড়ায়নি এবং সে যে তার শপথ পুরনে সক্ষম তার প্রমান আমরা পাই এই আয়াতদ্বয়ে।{আপনি যতই চান, অধিকাংশ লোক বিশ্বাসকারী নয়। অধিকাংশ মানুষ যারা আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করে, কিন্তু সাথে সাথে শিরকওকরে। ১২:১০৩,১০৬}                শয়তান মানুষের প্রকাশ্য শত্রু। সে কসম খেয়েছে কেয়ামত পর্যন্ত আদমের বংশধরকে বিপথগামি করেই যাবে। শয়তানের চক্রান্ত থেকে বাচানোর লক্ষ্যে আল্লাহ মানব সমাজের শুরু থেকেই বিভিন্ন নবি ও রসূলের মাধ্যমে  ঐশীগ্রন্থ পাঠিয়ে শয়তানের পরিচিতিও লক্ষ্য সম্পর্কে মানুষকে অবহিত করেছেন এবং হেদায়েত করেছেন।{আমরা বল্লাম, তোমরা সবাই  নেমে যাও এখান থেকে। অতঃপর যখন তোমাদের নিকট আমার পক্ষ থেকে কোন হেদায়েত  পৌঁছে, তবে যে ব্যক্তি আমার সে হেদায়েত অনুসারে চলবে, তার উপর না কোন ভয় আসবে, না তাকে দুঃখ করা লাগবে। ২:৩৮,  তিনি বললেনঃ তোমরা উভয়েই এখান থেকে এক সঙ্গে নেমে যাও।তোমরা একে অপরের শত্রু।এরপর যদি আমারপক্ষ থেকে তোমাদের কাছে হেদায়েত আসে, তখন যে আমার বর্ণিত পথ অনুসরণ করবে, সে পথভ্রষ্ঠ হবে না এবং কষ্টে পতিত হবে না। ২০:১২৩} পার্থিব জীবণের শুরু থেকেই  মানুষকে আল্লাহর হেদায়েত প্রাপ্তিতে বাধা সৃষ্টির লক্ষ্যে বা হেদায়েতকে অকার্যকর করার জন্য শয়তান উর্ধজগতের সাথে মানুষের যোগাযোগের মাধ্যমে অনুপ্রবেশ ও আড়িপাতার চেষ্টা করেছে।  { নিশ্চয় আমি নিকটবর্তী আকাশকে তারকারাজির দ্বারা সুশোভিত করেছি এবং তাকে সংরক্ষিত করেছি প্রত্যেক অবাধ্য শয়তান থেকে। ওরা উর্ধ্ব জগতেরকোন কিছু শ্রবণ করতে পারে না এবং চার দিক থেকে তাদের প্রতি উল্কা নিক্ষেপ করা হয় ওদেরকে বিতাড়নের উদ্দেশে। ওদের জন্যে রয়েছে বিরামহীন শাস্তি। তবে কেউ ছোঁ মেরে কিছু শুনে ফেললে জ্বলন্ত উল্কাপিন্ড তার পশ্চাদ্ধাবন করে।৩৭:৬-১০} আল্লাহর বাণী যাতে অপরিবর্তিতভাবে মানুষের কাছে পৌছায় এবং শয়তান যাতে আঁড়ি না পাত্তে পারে , সে … বিস্তারিত

স্তন ও মাথা অনাবৃত দাসীদের পরিবেশ

ভূমিকা ইসলামি শরিয়া মোতাবেক দাসীর আওরাত হল নাভি থেকে পায়ের হাঁটু পর্যন্ত (عورتها من السُّرَّة إلى الرُّكبة), যেমনটি পুরুষের আওরাত। একজন দাসী তার নাভি থেকে হাঁটু ঢাকবে এবং এতটুকু বস্ত্র পরে সে নামাজও আদায় করতে পারবে। হিজাব হচ্ছে স্বাধীন সম্ভ্রান্ত … বিস্তারিত

ভারতবর্ষে ‘নন-ট্রাডিশনালিস্ট’ আলেমদের ধারা : সূচনা ও বিকাশ

( ভারতবর্ষে দেওবন্দি ঘরানায় শিক্ষিত ব্যক্তিরা আলেম হিসেবে পরিচিতি পেলেও এর বাইরেও আলেমদের আরও গুরুত্বপূর্ণ ধারা আছে। যাদের সাথে দেওবন্দের সরাসরি কোনো বিরোধ নেই। এই ধারার মধ্যে বুদ্ধিবৃত্তিক চর্চা প্রবল। বাংলাদেশে নব্বই দশকের পরে ধর্মীয় শিক্ষিতদের মধ্যে সাহিত্য ও বুদ্ধিবৃত্তিক … বিস্তারিত

সাম্য, বৈষম্য ও রাজ্য কাহিনী

[১] হযরত আব্দুল্লাহ বিন ওমর (রা) থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ (সা) বলেছেন, ‘আল্লাহ যখন মানুষকে সৃষ্টি করলেন তখন তাদের উপরে আরবদেরকে নির্বাচন (বা পছন্দ) করলেন, তারপর আরবদের উপর কোরাইশদেরকে নির্বাচন করলেন, তারপর কোরাইশদের উপর হাশেমি গোত্রকে নির্বাচন করলেন, তারপর হাশেমি গোত্র … বিস্তারিত