মি: ম্যাক্রোনের বাক স্বাধীনতার সংজ্ঞা

160 জন পড়েছেন


মিঃ ম্যাক্রো-বাক স্বাধীনতার সংজ্ঞা জাস্টিন ট্রডোর কাছ থেকে শিখে নিতে পারেন।
কানাডাঃ ফ্রান্সের ব্যাং-চিত্র নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে কানাডিয়ান প্রাইম মিনিস্টার বলেন “ বাক স্বাধীনতারও একটা লিমিট আছে। তিনি উদাহরন দিতে গিয়ে বলেন “সিনেমা হল ভর্তি দর্শকদের মধ্য থেকে হঠাত দাঁড়িয়ে চিৎকার করা আমাদের অধিকারে পরে না –এখানে সীমাবদ্ধতা আছে”। আমরা অন্যদের প্রতি সম্মান দেখানো উচিত, বিনা কারনে বা অজুহাতে যাদের (মুসলিমদের) সাথে আমরা এই সমাজ ও পৃথিবীতে বাস করছি তাদেরকে আঘাত করা ঠিক না”
“We do not have the right for example to shout fire in a movie theatre crowded with people, there are always limits,” “freedom of expression does not come without limits. “We owe it to ourselves to act with respect for others and to seek not to arbitrarily or unnecessarily injure those with whom we are sharing a society and a planet,”
ফ্রান্সঃ আল জাজিরা টেলিভিশনে এক সাক্ষাৎকারে ম্যাক্রো বলেন, মহানবী(সা.)-কে নিয়ে আঁকা বিতর্কিত ব্যঙ্গচিত্রের কারণে মুসলিমরা কেন এতটা ক্ষুব্ধ হয়েছিল সেটা তিনি বুঝতে পারেন। তিনি আরো বলেন” মুসলিম বিশ্বে তার কথা নিয়ে যে এরকম তীব্র প্রতিক্রিয়া হয়েছে, তার কারণ হচ্ছে লোকে ভুল করে ভেবেছেন তিনি মহানবী (সা.)- এর ব্যঙ্গচিত্রকে সমর্থন করেছেন। অথবা তারা মনে করেছেন ফরাসি সরকারই বুঝি এই ব্যঙ্গচিত্র তৈরি করেছে। যে ধরনের অনুভূতি প্রকাশ করা হচ্ছে আমি সেটা বুঝতে পারি এবং আমি তাদের শ্রদ্ধা করি। কিন্তু আমার ভূমিকাটিও আপনাদের বুঝতে হবে।
“French President Emmanuel Macron says he understands the feelings of Muslims who are shocked by the displaying of cartoons of Prophet Muhammad”” “I understand the sentiments being expressed and I respect them. But you must understand my role right now” …।
সূর পাল্টে গেল মনে হচ্ছে। মিঃ ম্যাক্রো তার নিজের সেন্টিম্যান্টকে কন্ট্রোল করার চেষ্টা করছেন।সেটা ভাল লক্ষন। আমরা মিঃ ম্যাক্রোকে বলবো শিখতে তো আর অসুবিধা নাই, আমার প্রাইম মিনিস্টারের কাছ থেকে বাকস্বাধীনতার সংজ্ঞা শিখে নিন । আপনাদের অতীত ইতিহাস তো আর এত স্বচ্ছ নয়; ১০০বছর দখলদারীত্ব চালিয়ে ১ মিলিয়ন আলজিরিয়ান মুসলিমদেরকে হত্যা করেছেন আপনারা , এটাও জেনোসাইড-এটা ও হলোকাস্ট।
আমরা ফ্রান্স বিরুধী না বা ফ্রান্সের জনগনের বিরুধী না – ফ্রান্সের একজন নিরপরাধ জনগনকে আঘাত বা হত্যার তীব্র ঘৃনা জানাচ্ছি আমরা । মিঃ ম্যাক্রো আপনাকে কিন্তু বুজতে হবে এটা মুসলিমদের ক্রাইসিস না- এটা আপনার দেশের ক্রাইসিস-তাই এটাকে আপনারাই সমাধান করতে হবে।

160 জন পড়েছেন

ফয়জুল হক

About ফয়জুল হক

লেখক কানাডা প্রবাসী এবং ক্যানাডাবিডিনিউজ ডটকম’র সম্পাদক।

Comments are closed.