স্মৃতি

যে কাল চলিয়া গিয়া স্মৃতি হয়ে আছে কাদম্বিনী সম যেন মরিয়া বাঁচিছে কত কথা, কত ভাব, কত কিছু জাগে কাল যেন কথা কহে স্মৃতিপট-বাগে ভাবি তারে সেকি স্বপনচারী, না, আমিই আমাতে স্বপনে বিহারি না, ঝামেলা অন্য কিছু -কাল আর আমি … বিস্তারিত

ত্রিপঞ্চপদী

জ্বালা জ্বালাকে মালা ভেবে সয়ে যাওয়া ছাড়া নেই কোন গতি। কঠিন পাষাণ ভার চেপেছে বুকে যার সেই বোঝে শুধু, কোন ফুলে আছে বিষ,কোন ফুলে মধু!! হৃদয় হায়রে হৃদয়! নিত্য সে কেঁদে ফেরে হৃদয় সন্ধানে একান্ত গোপনে। দ্বিধাহীন দ্বিধা তারে বাঁধি … বিস্তারিত

মৃত বিশ্বাস

যখন তুমি আমার ছিলে তখন ভাবছি আমি, তুমি হয়ত হিরে মুক্তা নয়তো আরও দামি। তোমায় পাবো স্বপ্ন ছিল আমার বুকের মাঝে, তুমি শুধু-তুমিই ছিলে আমার সকল কাজে। স্বপ্ন গুলো সপ্ন ছিল হওনি আমার তুমি, আজও আমি কান পেতে রই তোমার … বিস্তারিত

একান্ত জিজ্ঞাসা

দূর ছাই! কি যে করি? কোথায় লুকাই তারে? খুশির খবরে যদি চোখে আসে জল? জীবনের প্রতি পদে হোঁচট খাওয়া কষ্ট দুঃখ নিয়ে নিত্য পথ চলা না থাকে সঙ্গী যদি কেউ, থাকে অশ্রুজল! সেলফোনে আসে যদি কোন আনন্দ বারতা, যা শুনে … বিস্তারিত

নদীর ভূবনে আমার হলো না যাওয়া

অনেক দূর হেঁটেছি কাক ডাকা ভোর থেকে তবু যাওয়া হলো না নদীর ভূবনে । আঙিনা পেরিয়ে কুয়া তেজী পুরুষের কল্যাণে ক্ষয়ে যাওয়া এবড়ো থেবড়ো পাড় লতা পাতায় ঢাকা ঝোপ জঙ্গল দাদা দাদীর কবর আঁধার জলাশয় বিবর্ণ মাট মাঠের হৃদয় ফুঁড়ে … বিস্তারিত

এতো জল আমি রাখবো কোথায় / মফিজুল ইসলাম খান

আমার বসত জল থইথই এতো জল আমি রাখবো কোথায়? দুপুর রজনী জলের বাসরে একাকার হয়ে হাবুডুবু খায় সখের বিছানা কাপড় চোপড় বিষে ভরা দেহ আশ্রয় চায়। এতো জল আমি রাখবো কোথায়? বিধির খেয়াল  বৃষ্টি কান্না অবিরাম গায় রণসংগীত সুরের মাতম … বিস্তারিত

শাদা বক / মফিজুল ইসলাম খান

হতাম যদি শাদা বক বিলে ঝিলে লাফিয়ে লাফিয়ে খেতাম পুটি মাছ মনের সুখে পাখার আড়ালে এক পা লুকিয়ে চুপচাপ দাঁড়াতাম ঘুম ঘুম চোখে খুলে যেতো স্বপ্ন ভূবন। স্বপ্নঘোরে নিঠুর শিকারীর বিষের তীর ছুঁয়ে যেতো বাদামী খুঁটির হৃদয় দেখতাম নেতিয়ে পড়েছে … বিস্তারিত

জীবন / মফিজুল ইসলাম খান

জীবন মানে খুপড়ি থেকে বেরিয়ে প্রথম প্রহরে সূর্যের মুখোমুখি বুক চিতিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা ।   জীবন মানে মধ্যাহ্নে বেতাল নৃত্য চৌহদ্দি জুড়ে অসম যুদ্ধ ।   জীবন মানে সব কিছু ফেলে দিয়ে অপরাহ্নে মাটির কাছাকাছি সটান ঘুমিয়ে পড়া ।   … বিস্তারিত

নির্বাসনে যাবো আমি / মফিজুল ইসলাম খান

নির্বাসনে যাবো আমি নির্বাসন দাও যদি জনারণ্যে কোলাহল আমার পছন্দ নয় তবু আমি মাথা পেতে নেবো সখি অগ্নিশিখা জ্বলে জ্বলে হবো ছাই বিধাতার সুনিপুন বলি আমি এক জিন্দালাশ । বাজাবো বাঁশের বাঁশি নির্বাসনে মাথায় বাঁধবো ফিতা রক্ত লাল হাতে তুলে … বিস্তারিত

শেষ বেলার কবিতা; সুন্দর পৃথিবী এঁকে দাও

আমার ছয় বয়সী মেয়ে, তার খাতা আর পেনসিল আমার সামনে ধরে আবদার করে- বাবা, আমাকে একটা পাখি এঁকে দাওনা ? আঁকলাম…. সে তা দেখে অবাক , চেঁচিয়ে প্রতিবাদ জানায়… বাবা, আমি না তোমাকে পাখি আঁকতে বলেছি…. কিন্তু বাবা….তুমি যে খাঁচা … বিস্তারিত

অভাব আমার বন্ধু / মফিজুল ইসলাম খান

অভাব আমার বন্ধু সুজন শোনে না কানে যুদ্ধ দামামা পারে না জাগাতে বিকট গানে ভাঙ্গে না তার আজন্ম ঘুম । যতই বলি ছেড়ে দাও সখা আমার জীবন সুখের গলি মাড়িয়ে আসুক সুখের পরশ মাথায় করে চলে যাবো একা স্বজনের সুখ … বিস্তারিত

অপূর্ণ বাসনা

আমি যেন এক নদী চলেছি বয়ে নিরবধি অনন্তকাল ধরে; পথে যেতে যেতে পথের দু’পাশে ফসলের ক্ষেতে, তৃষ্ণার্তের মুখে দিয়েছি বারিধারা হয়েছি গতিহারা সাগরে মিশে।   নিজেকে ভালোবেসে সাগরকে ভালোবেসেছি তার বুকে সঁপে দিয়ে সব কিছু মোর, প্রাণ খুলে হেসেছি। কখনো … বিস্তারিত

তিনটি ছড়া / মফিজুল ইসলাম খান

০১। কিসের ব্যথা আজ সকালে গাছের ডালে গায়নি পাখি তালে তালে শিশির ভেজা পত্রপুটে কিসের ব্যথা রইলো ফুটে । ০২। কালো ময়নার ছা কালো ময়নার ছা গয়না ভরা গা কয়না কথা লাজে সকাল দুপুর সাঁজে । ০৩। কোকিলের বিয়ে কোকিল … বিস্তারিত

তৃষিত চাতক / মফিজুল ইসলাম খান

ধূলাক্ত বসন এলোমেলো চুল চোখের কার্ণিশে জলবিন্দু পঁচিশে বেড়ে ওঠা এক তৃষিত চাতক আদিবৃত্তে খোঁজে সুপেয় জল ।   পায় না জলাধার সবুজে ঘেরা নিরিবিলি চাতাল কাঁকনের সুরে কুসুমিত প্রহর হৃদয় ছোঁয়া ।   খুঁজে খুঁজে ক্লান্ত তৃষিত চাতক খুলে … বিস্তারিত

বামুন ঠাকুর / মফিজুল ইসলাম খান

এক যে ছিলো বামুন ঠাকুর একখানা চোখ ঠেরা কাজ ছিলো তার পাড়ায় পাড়ায় মন্ত্র পড়ে ফেরা । পেট ছিলো তার লাউয়ের মতো মাথা ভরা টাক ভর দুপুরে ঢালতো পানি একটু পেলেই ফাঁক । এক দুপুরে মনের ভুলে গরম পানির ডেকছি … বিস্তারিত