রোজা রাখার কারণে সমাজ কি খোদা-ভীতু হয়?

এই প্রশ্নের উত্তর সমাজের সার্বিক বাস্তবতার দিকে তাকালেই বোঝা যাবে। ওখানে দেখা যাবে যে মানুষের তাকওয়া বা খোদা-ভীতি গত বছর রোজা রাখার আগে যেমন ছিল, রোজা রাখার পরেও তেমন ছিল। এর আগের বছর যেমন ছিল, পরের বছরও তেমন ছিল, এবং … বিস্তারিত

ইসলাম বিশ্বাসের স্বাধীনতা দিতে আসে নি ― শাইখ আল-ফাওযান

[এই পোস্টের কথাগুলো শাইখ সালেহ আল ফাওযানের। শাইখ আল-ফাওযান সৌদি আরবের একজন বড় ফকীহ, মক্কার আল-মুকাররামার ফিকহ একাডেমির সদস্য, সৌদির বয়োজ্যেষ্ঠ উলামা সংগঠন “হাইআতু কিবারিল উলামায়িস সুউদিয়্যাহ” এর সদস্য, প্রিন্স মি‘তিব বিন আব্দুল-আজিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক। শাইখ আল-ফাওযানকে এক ব্যক্তি বিশ্বাসের … বিস্তারিত

আত্মসাধনার ধর্ম ও রাজ্য জয়ের ধর্ম

ভূমিকা -সমস্যার স্থান সমাজে ‘ধর্ম’ আছে, কিন্তু একই সাথে চলে হিংসা-বিদ্বেষ, বিবাদ-বিসম্বাদ, ঝগড়া-ফ্যাসাদ, দৈহিক ও ভাষিক আক্রমণ, দলাদলি, রেষারেষি ইত্যাদি। ধর্ম হওয়া উচিৎ এগুলো থেকে পরিত্রাণ। এই পরিত্রাণের জন্য মানুষ আত্মসাধনা করবে, অন্তঃরাজ্য গড়বে, সুন্দরের রূপায়ন ঘটাবে -এটাই ধর্ম। মানুষ … বিস্তারিত

নিফাকিকরণ থেকে সামাজিক মুক্তি –একটি আলোচনা

ইসলাম ধর্মে, রাসূলের (সা) মদিনায় হিজরতের পরবর্তী সময় থেকে, যে জিনিসটি ‘নিফাক’ বা কপটতা বলে উল্লেখ হয়ে আসছে, এ আলোচনা সেই বিষয়ের উপর। ধর্মীয় ও সামাজিক আন্দোলনে এক দল আরেক দলকে কপট বলে থাকে। ব্যক্তি পর্যায়েও একজন অন্যজনকে বলে থাকে। … বিস্তারিত

জ্ঞানগত বৈপরীত্যে অনেক আদর্শ ও বিশ্বাস

আমরা যখন কোন রাজনৈতিক দলে প্রবেশ করি, বা ধর্মে প্রবেশ করি, বা আদর্শিক কাল্টে বা দলে প্রবেশ করি, এবং সেই অঙ্গনের আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িত হই, তখন সেখানে এক সময় অনেক দ্বান্দ্বিকতা, দ্বিমুখী নীতি বা কন্ট্রাডিকশন দেখতে পেয়ে থাকতে পারি, কিন্তু সেগুলোকে … বিস্তারিত

ধর্ম যার যার, স্রষ্টা সবার

আমরা এই সমাজে ইয়াহুদী, নাসারা, হিন্দু, বৌদ্ধ সকল মানুষ নিয়ে বাস করি: একে অন্যের সেবা দেই, সেবা নেই, পড়াই বা পাঠ গ্রহণ করি। সবাই আমাদের মত মানুষ — সবাই স্রষ্টার সৃষ্টি। আমরা অতীতের হিংসা-বিদ্বেষে নেই। আমরা সবার জন্য দোয়া করি … বিস্তারিত

অনৈতিকতার উৎস ও প্রাচীন ধর্মতাত্ত্বিক সমাজ সংস্কার

সকল সমাজ, কাল ও ভূখণ্ডে মানুষের মধ্যে সুকর্ম-দুষ্কর্ম, সাধু-কাজ, প্রতারণা, সুনীতি-দুর্নীতি, জোর-জুলুম ইত্যাদির অস্তিত্ব পাওয়া যায়। এগুলোর মাত্রা কখনো বাড়ে, কখনো কমে, তবে কম-বেশি সব সময়ই থেকে থাকে। কিন্তু মানব ইতিহাসের ধারায় কিছু লোক নিজেদের আত্মপ্রতিষ্ঠা, রাজ্য-প্রতিষ্ঠা, ক্ষমতা-আত্তীকরণ ইত্যাদির জন্য … বিস্তারিত

আধুনিক জ্ঞানে কুরআন বোঝার পরিপক্বতা অর্জন

একজন আদর্শ মুসলিমের জন্য দ্বীন এবং দুনিয়া উভয়ের জ্ঞান অন্বেষণ খুবই জরুরী আর এ পথে যারা অগ্রসর হবে তাদেরকেই বলা যায় “উলুল আলবাব” যাদের সফলতার কথা বলা আছে কোরআনে। আর যারা শুধু দ্বীনি জ্ঞানকে দুনিয়ার জীবনে নিজেদের জীবিকা অর্জনের পেশায় … বিস্তারিত

মূল্যবোধের সংঘর্ষ

আপনি যদি অন্য ধর্মের লোকদেরকে অন্ধ, মুক, বধির বলেন, আপনি যদি তাদেরকে অপবিত্র নাজাস মনে করেন, আপনি যদি তাদেরকে গর্দভ, ইঁদুর, বানর ইত্যাদি পশুর সাথে তুলনা করেন এজন্য যে তারা আপনার ধর্ম মানতে পারেনি, এবং আপনি যদি অন্যদের চাইতে উত্তম … বিস্তারিত

বস্তুকেন্দ্রিক আধ্যাত্মিকতা

মানুষ বস্তুর সমন্বয়ে গঠিত প্রাণী। জন্মের পর থেকেই সে নিজেকে বস্তুর জগতেই দেখে। তার পঞ্চেন্দ্রিয় বস্তুর বাইরের কোনো জিনিসকে আত্মস্থ করতে পারেনা, কিন্তু জন্ম মৃত্যুর রহস্য নিয়ে সে ভাবে। এই বস্তুজগত নিয়ে তার ভাবনা, তার ধ্যান-সাধনা একসময় তার আধ্যাত্মিকতায় রূপ … বিস্তারিত

গ্রন্থিক যুগে ফিরার আহবান বনাম এ-কালের জীবন ও সমাজের প্রতি যৌক্তিক অভিনিবেশ

মানুষ কালের সন্তান। তার নিজ সময়ে বা কালে যা কিছু করার ও মানার প্রয়োজন মনে করে সে তা’ই স্বাচ্ছন্দ্যের সাথে করতে পারে, কিন্তু যেসব বিষয়ের প্রয়োজন তার জীবনের সাথে সামঞ্জস্যশীল নয়و যেসব কাজের সার্থকতা তার যুক্তির আওতাভুক্ত হয় না, সেগুলো … বিস্তারিত

অতীতের টানা-পুড়নে বর্তমানের বাপ-দশা

-এক- মানুষের অতীতে অনেক যুগ, অনেক কাল ছিল  যখন তারা কচি কচি মেয়েদেরকে বিবাহ দিত,  স্বামীরা এমন মেয়েদেরকে তালাকও দিত,  অথচ তখনও তাদের মাসিক ঋতুও আসত না,  অর্থাৎ তখনো তারা শারীরিকভাবে স্বামীর ঘর করার  উপযুক্ত হত না। আজকের সমাজ এটাকে … বিস্তারিত

টোটেমিজম ও বিবর্তন

আদিতে এক সময় প্রায় সকল ভূখণ্ডের মানুষই টোটেমিজমে (طوطمية) বিশ্বাস করত। এই বিশ্বাস হচ্ছে সকল জৈবিক অজৈবিক পদার্থে অশরীরী (spiritual) সত্তার বা শক্তির উপস্থিতি এবং এই সত্তারা মানুষের জীবনে ভাল-মন্দ ঘটাতে পারে। সংক্ষেপে এই ধরণের বিশ্বাস। আরবরা অনেক প্রাণী ও … বিস্তারিত

পল জোসেফ গোবেলস ও মিথ্যা-সত্য

“When you tell a lie often enough, it becomes the truth – আপনি যখন একটি মিথ্যাকে বার বার আওড়াতে থাকেন (বলতে ও প্রচার করতে থাকেন), তখন তা সত্যে পরিণত হয়।” পল জোসেফ গোবেলস (নিকটতম সঠিক উচ্চারণ ইউওসেফ গ্যাবেলস) একজন জার্মান … বিস্তারিত

ধর্ম এক সামাজিক বাস্তবতা

মানুষ ধর্মগত দিক দিয়ে সমাজ ধর্মের লোক। একটি শিশু হিন্দু, মুসলিম, জৈন, বৌদ্ধ, ইয়াহুদী এমন যে ধর্মেই জন্ম নেবে, সে সেই ধর্মকেই পালন করে যাবে, সেটিকেই সত্য মনে করবে, কেননা তার মা-বাপ, তার পরিবার, তার সমাজ সেই সত্যের আঙ্গিকেই তাকে … বিস্তারিত