এ দেশ আজ নরপশুদের হাতে জিম্মি

1979 জন পড়েছেন

৭১ এর রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ। অনেক ত্যাগ আর রক্তের বিনিময়ে স্বাধীনতা অর্জন। সুন্দর পবিত্র একটা দেশ চেয়েছিল লাখো শহীদ গাজী। আজ স্বাধীনতার এতগুলো বছর পরও তাদের সে স্বপ্নের বাংলাদেশ পায়নি জাতি। পায়নি সোনার দেশের সোনার মানুষ। পেয়েছে শুধু নরপশু। যারা বারংবার রক্তাক্ত করে চলছে সোনার বাংলা তীক্ষ্ণ থাবায়। অশুচি করে চলছে আকাশ বাতাস প্রকৃতির প্রতিটি অণু-পরামাণু। দূষিত হাওয়ার বিষাক্ত গ্যাস চেম্বার যেন। এখানে আজ নিরাপদ নয় কেউ। কন্যা জায়া জননীরাতো নয়ই। চিল শকুন আর বুনো হায়নারা আজ মানুুষের মুখোশে ঘুরে চারপাশে। জাতি আজ সারক্ষণ থাকে ভয়ে, শংকায় আর ত্রাসে।
কখন হামলে পরে নষ্টের দল। বিকৃত রুচি নিয়ে ঝাপিয়ে পরে খাবলে খায় পৈশাচিক উম্মাদনায়। হায়রে স্বাধীন দেশ। নিরাপত্তা লভিতে অনেক কষ্টে তোমায় পেয়েছি। কিন্তু কোথায় নিরাপত্তা? আজ মহা নিরাপত্তা বলয়ের মাঝেই সমাধি হয় তনুর মতো বোনদের। কি দোষ ছিল মেয়েটির? পর্দা করা শালিন এক মেয়ে। যে জীবন সংগ্রামে টিকে থাকার জন্য টিউশনী করে বাড়ি ফিরছিল। পর্দা নেই বলে তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে এই কথা আজ কেউ বলতে পারবেনা। শুধু ধর্ষণ নয় তাকে তারা নির্মম ভাবে হত্যাও করেছে। কেন এই বর্বরতা? ক্যান্টনমেন্ট এর মতো এমন একটি সুরক্ষিত এলাকায় অবাধে এমন অপকর্ম জাতিকে সত্যই বিস্মিত আর হতবাক করেছে। কারা কেন এ কাজ করেছে এখনো তা খুঁজে পায়নি আমাদের আইনশৃংখলা বাহীনি।

তনু হত্যার বিচার চাই

দ্রুত তাদের চিহ্নিত করে উচিত শাস্তি দিতে হবে। বাংলার মাটিতে নরপশুর চাষ হতে পারে না। এ মাটিতে তাদের স্থান হতে পারে না। সোচ্চার হতে হবে সকল দেশবাসীকে পৈশাচিক এ ঘটনার প্রতিবাদে। আজ বাংলাদেশ ক্রিকেটে হেরেছে বলে মন খারাপ। এক রানের কষ্ট। কিন্তু যে বোনটি আজ এভাবে নির্মমতার স্বীকার হয়ে প্রাণ হারাল তার মা বাবার সন্তান হারনো কষ্টের কাছে এ কিছুই নয়। তাই ক্রিকেট নিয়ে হাউকাউ না করে সোচ্চার হই মানবিক সামাজিক দায়িত্ব পালনে।আসুন সবাই মিলে আওয়াজ তুুলি- তনু হত্যার বিচার চাই। ধর্ষকদের ফাঁসি চাই। মা বোনদের নিরপত্তা চাই। আসুন সবাই মিলে এই বিচারটি দ্রুত ও ন্যয়সংগত ভাবে করার বিষয়ে সরকারকে বাধ্য করি। এ দেশ আজ নরপশুদের হাতে জিম্মি। তাদের থেকে প্রিয় মাতৃভুমি কে উদ্ধারে সচেষ্ট হই। ইন্ডিয়াকে হারিয়ে প্রতিশাধ নিতে না পারার কষ্ট এখন প্রতিটি ক্রীড়া প্রেমী মানুষের। কিন্তু তনু ধর্ষণ হত্যার প্রতিশোধ নিতে কেন কষ্ট হয় না আমাদের। খেলার কষ্টের কাছে মানবিকতা কেন হেরে যাবে?

হে আল্লাহ তুমি আমাদের নির্যাতিতা বোনটিকে মাফ করে দাও। তাকে জান্নাতে দাখিল কর।

1979 জন পড়েছেন

আতা স্বপন

About আতা স্বপন

আমি একজন অতি সাধারন মানুষ। আমি একজন মুসলিম। আমি একজন বাংলাদেশী। আমি আমার ধর্ম ও আমার দেশ কে ভালবাসি। আমি আমার দেশের সকল শ্রেনী পেশা ও ধর্মের লোকদের ভালবাসি। আমি ভাল লোকদের পছন্দ করি। নিজে ভাল হতে চাই।

Comments are closed.