স্বাধীনতার দাবী

2512 জন পড়েছেন

একটু পর শোনা যাবে মিয়া ছাবের হাঁকডাক
উঠে পড় সাদা মিয়া
আলো আঁধারের খেলা
গোপনে পালিয়ে যাই।

গত হলে কিছুদিন থানা হয়ে
না হয় আবার আসা যাবে
ডান্ডা হতে মিয়া ছাব থাকবে দাঁড়িয়ে
জেলখানাতো বাড়িঘর সুখের সংসার।

লিখে রেখেছি নাম থালা বাটি কম্বলে
সাথীরা যেনো মনে রাখে
একাত্তরের বিজয়ী বীর ঠাঁই নেয় বারবার
জানে না কি অপরাধ
এই মুক্ত স্বদেশে।

হৃদয়ে প্রেম আছে বলে
স্বাধীন হয়েছে দেশ
প্রিয় সখা
এই দেশতো এক বুক খোলা টগবগে তরুনী
লুটেরা লুটে সোনা দানা ঠোঁটের কাঁপন
যখোন তখোন, যখোন তখোন।

সময় নেই উঠে পড়
আলো আঁধারে চুপিচুপি নিতে হবে ঠাঁই বাসের ছাদে
কাক পক্ষী ফাঁকি দিয়ে
প্রিয়ার বুকে লুকোতে হবে চকচকে পিস্তল
প্রিয় সখা
বধুয়া আমার একা শক্রু কবলে
বিলম্বে তার স্বাধীনতা হরণ করে
হরিলুট দেবে পঞ্চপান্ডব।

বধুয়া আমার পোড়া কপালী
লুট হয়েছিলো যুদ্ধকালে
বুকে তাজা প্রেম দেহের ভাঁজে ভাঁজে কলংক ইতিহাস
হয়ে যায় বারবার লুটের মাল।

ছাব্বিশ মার্চ সূর্য ওঠার আগে
তুলে নেবো হাতে স্টেন গান
সরোষে ঘোষণা করবো স্বাধীনতার দাবী
লাখো জনতার রক্ত সতীত্বের ফসল
এই স্বাধীন বাংলাদেশ
এখানে
আমার স্ত্রীর একা একা
নিরাাপদে
বসবাসের স্বাধীনতা চাই
স্বাধীনতা চাই।

2512 জন পড়েছেন

About মফিজুল ইসলাম খান

মফিজুল ইসলাম খান পিতা-মৃত আব্দুল মন্নাফ খান । মাতা-সাফিয়া খাতুন । জন্ম- ০৪-০৯-১৯৫৪ । জন্মস্থান-ঘিলাতলী, বিবির বাজার, কুমিল্লা। শিক্ষাগত যোগ্যতা-এমকম,এলএলবি । একটি জাতীয়করণকৃত ব্যাংকের ডিজিএম (অবঃ)। বর্তমানে আইনজীবী । বসবাস-ঢাকায় । ইতিপূর্বে প্রকাশিত কবিতার বই-আন্দোলিত প্রান্তরে আহত চিৎকার, জোসনার ফুল, যন্ত্রণার অনুলিপি । ছড়ার বই-তাক ডুমাডুম ঢোল বাজে । ছড়া-কবিতার বই-আবোল তাবোল । উপন্যাস-মিসকল মফিজ । যৌথ- কবিতার বই-কোমল গান্ধার । যৌথ শিশুতোষ গ্রন্থ-খেঁকশিয়াল ফুলপরী ও বাজপাখীর গল্প ।

Comments are closed.