স্বাধীনতা –কিছু হাল্কা বাৎচিত

2025 জন পড়েছেন

আমি স্বাধীন –এই কথাটি কী সহজ-সোজা -মামুলী? না। মূলত স্বাধীনতার ধারণাটি বেশ জটিল। আপনি কীসের মোকাবেলায় বা পরিপ্রেক্ষিতে স্বাধীন? আপনি আগে কী করতে পারতেন না যা এখন পারেন? আপনার এই পারার সীমা কতটুকু? এটা কী সীমাহীন? যদি সীমা থাকে তবে সেই সীমা কোথায়? কীসের ভিত্তিতে সেই সীমা নির্ধারিত হয়? আমরা যদি স্বাধীনতার ধারণাকে এভাবে প্রশ্ন করতে থাকি তাহলে অনেক ভিন্ন ধারণায় উপনীত হতে পারি যা আগে কল্পনা করিনি।

স্বাধীনতার সাথে কী ক্ষমতা সম্পর্কিত? একটু চিন্তা করুন। এই স্বাধীনতা মূলত ব্যক্তির সাথে, না তার সামাজিক অবস্থানের সাথে, তার রাজনৈতিক অবস্থানের সাথে, তার ধনাঢ্যতার সাথে জড়িত, না সবগুলোর সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত? বাংলাদেশে আপনার স্বাধীনতা ও হাসিনার স্বাধীনতা কী এক? যদি এক না হয়ে থাকে, তবে আপনার স্বাধীনতা কোথায় আর তার স্বাধীনতা কোথায়?

স্বাধীনতা তাহলে কী কম বেশি হতে পারে? কার জন্য সর্বনিম্ন মাত্রা হতে পারে? কেন তার জন্য সর্বনিম্ন হবে? ‘স্বাধীনতা’ কী এমন কিছু হতে পারে যার মাধ্যমে আপনাকে আমাকে ধোঁকা দিয়ে একদল লোক তাদের ‘উদ্দেশ্য’ হাসিল করতে পারে? ‘স্বাধীনতা’ ‘স্বাধীনতার’ ধোঁয়া তুলে কী একটি বিশেষ শ্রেণী তাদের নিজেরদের স্বার্থে বিপ্লব করে ক্ষমতা দখল করতে পারে? স্বাধীনতার দিগ্বিদিক কী অনেক রূপের হয় না? যারা স্বাধীনতার আওয়াজ তুলে সমাজকে কব্জা করে ‘স্বাধীন’ হয়, তখন গরীব ও ক্ষমতাহীনের স্বাধীনতার কী হয় যাদের সাহায্যে তারা ‘স্বাধীন’ হয়েছে?

আমি যদি বলি যে ‘স্বাধীনতা’ হচ্ছে বহুলাংশে ধাপ্পাবাজি কথা, তাহলে কেমন শোনাবে? আমাদের বিশ্ব-মানবতা এই শব্দটির ব্যবহার সবদিনই দেখেছে। তবে সপ্তদশ শতাব্দীর পর থেকে এবং বিশেষ করে ফরাসী বিপ্লবীদের হাতে এবং ইউরোপীয় আধুনিকতাবাদীদের হাতে এসে রাজনৈতিক ধাপ্পাবাজিতে পর্যবেশিত হয়েছে। শুধু এই শব্দ নয়। এর সাথে আরও অনেক শব্দের অপব্যবহার হয়েছে। কিন্তু সাধারণ মানুষ অনেকদিন পরে দেখেছে যে স্বাধীনতার নামে তারা পূর্বের ‘স্বাধীনতা’বহুলাংশে হারিয়েছে, পরাধীনতার জিঞ্জিরে আবদ্ধ হয়েছে। কিন্তু তখন অনেক দেরী হয়ে গিয়েছে। নতুন রাজনীতি ও বাস্তবতা থেকে ফিরার পথ নেই। তাই আবার স্বাধীন হওয়ার অন্য আওয়াজ এসেছে এবং দ্বিতীয় তৃতীয় প্রজন্ম সেই স্বাধীনতার পিছনে দৌড়ে গিয়ে আবারও তাদের পূর্ব-প্রজন্মের মত অন্য ধরণের পরাধীনতার শৃঙ্খলে আবদ্ধ হয়েছে এবং এখান থেকে স্বাধীনতা লাভের স্বপ্ন আবার দেখেছে। আর এভাবেই চলছে এক শ্রেণীর ধোঁকার রাজনীতি।

বি:দ্র: এ লিখাটি পূর্ব প্রকাশিত পাঠকদের মন্তব্য পড়তে এখানে ক্লিক করুন

 

Facebook Comments

2025 জন পড়েছেন

About এম_আহমদ

প্রাবন্ধিক, গবেষক (সমাজ বিজ্ঞান), ভাষাতাত্ত্বিক, ধর্ম, দর্শন ও ইতিহাসের পাঠক।