নয়নতারা / মফিজুল ইসলাম খান

1496 জন পড়েছেন

নয়ন সমুখে থাকো নয়নতারা
হারিয়ে যেওনা কভু অন্য মনে
খুঁজে পাবো না তোমায় মরণ রাতে
ঝিরঝির বাতাসের মহুয়া বনে ।

বৃষ্টি ভেজা সকালে পারিনি দিতে
ঢেউ তোলা ভালোবাসা পাখির শিষ
ব্যর্থ পুরুষ আমি শুভ লগনে
খলখলে ফোয়ারায় ঢালিনিকো বিষ ।

রাত যায় দিন যায় কষ্ট মনে
অকারণে বেড়ে ওঠে বিষের কাঁটা
কেমোনে বুঝাবো সখি বন্দি আমি
বিধাতার রোষানলে অকালে ভাটা ।

রাতের আঁধারে কাঁদি ঝরণাধারা
বিধির বিধান তবু সরোষে খাড়া
দিশেহারা কবুতর মৃত্যুপানে
বাড়িয়ে রেখেছি হাত উদাস গানে ।

1496 জন পড়েছেন

About মফিজুল ইসলাম খান

মফিজুল ইসলাম খান পিতা-মৃত আব্দুল মন্নাফ খান । মাতা-সাফিয়া খাতুন । জন্ম- ০৪-০৯-১৯৫৪ । জন্মস্থান-ঘিলাতলী, বিবির বাজার, কুমিল্লা। শিক্ষাগত যোগ্যতা-এমকম,এলএলবি । একটি জাতীয়করণকৃত ব্যাংকের ডিজিএম (অবঃ)। বর্তমানে আইনজীবী । বসবাস-ঢাকায় । ইতিপূর্বে প্রকাশিত কবিতার বই-আন্দোলিত প্রান্তরে আহত চিৎকার, জোসনার ফুল, যন্ত্রণার অনুলিপি । ছড়ার বই-তাক ডুমাডুম ঢোল বাজে । ছড়া-কবিতার বই-আবোল তাবোল । উপন্যাস-মিসকল মফিজ । যৌথ- কবিতার বই-কোমল গান্ধার । যৌথ শিশুতোষ গ্রন্থ-খেঁকশিয়াল ফুলপরী ও বাজপাখীর গল্প ।

Comments

নয়নতারা / মফিজুল ইসলাম খান — ৪ Comments

  1. খান ভাই আর একটি অনুরোধ! ব্লগ যেহেতু একটি সামাজিক বান্ধব সভা কাজেই আমরা যারা ব্লগে লিখা লিখি করি তারা এক ব্লগার আরেক ব্লগারের সাথে যোগাযোগ রাখার চেষ্টা করা উচিত। যেমন আপনি একজন সালাম দিলেন তখন উনি যদি আপনার সালামের উত্তর না দেন তাহলে কি আপনি উনার বাড়িতে কি আবার যাবেন? আপনার বন্ধু যদি আপনার বাড়ি বেড়াতে আসেন আর আপনি যদি সে বন্ধুর বাড়ি যাবার প্রয়োজনীয়তা বোধ করেন না, তাহলে আপনার ঐ বন্ধুও আপনার বাড়িতে আবার আসবেন!
    কাজেই সবার লেখায় ভালমন্দ কিছু বলে যোগাযোগ রাখার চেষ্টা করে যাবেন, দেখবেন তাতে ব্লগে আপনার পাঠক এবং ব্লগ বন্ধুর সংখ্যা বেড়ে যাবে।
    ধন্যবাদ।

  2. মুনিম ভাই
    আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ । আপনাকে ভুলি নাই । আপনি আমার কবিতার প্রশংসা আগেও করেছেন । আমি আছি আপনার সাথে । আল্লাহ বাঁচালে আগামী দিনেও থাকবো ।

  3. খান ভাই আপনাকে সংলাপে স্বাগতম!!!

    কবিতাটি আমার খুব ভাল লেগেছে! আশাকরি সব সময় সংলাপে আপনার লেখা পোস্ট করে যাবেন। এই ব্লগ নতুন তাই তেমন জমজামাট হয়ে উঠে নাই। কাজেই পাঠক কম দেখে দূরে চলে যেন না যান সেই অনুরোধটুকু থাকলো! ধন্যবাদ।