গ্রন্থ পর্যালোচনা “এই ঘর এই লোকালয়”

1375 জন পড়েছেন

 

গ্রন্থ পর্যালোচনা “এই ঘর এই লোকালয়”
—মোঃ শামসুল হক (শামস)

পৃথিবীতে মানুষের আগমন এক অনন্ত রহস্যের মাঝে ঘুর্ণয়মান । এই আসা যাওয়ার প্রপঞ্চে মানুষ প্রকৃতির প্রেমে বিভোর । মানুষ এই পৃথিবীকে ভালবাসতে প্রানান্ত আকুল । কিন্তু নিয়িতর অমোঘ বিধানের কাছে চিরকাল সমর্পিত । মানুষ জানে এই পৃথিবী কখনো কাউকে একান্ত আপন করে ঠাঁই দিতে পারেনা । তবুও আলোচ্য গ্রন্থের রচয়িতা জীবনদর্শন ভিত্তিক অভিজ্ঞতা অনুভূতি কবিতায় প্রকাশের এক বিশাল দায়িত্ব নিয়ে রচনা করেছেন ” এই ঘর এই লোকালয়”গ্র্রন্থখানি ।

একুশের বই মেলা ২০০০ এ কবির প্রথম কাব্য গ্রন্থ “এই ঘর এই লোকালয়” প্রকাশের ভার নিয়েছেন প্রবর্তন প্রকাশনা সংস্থা । গ্রন্থটির প্রচছদ এঁকেছেন কম্পিউটার গ্রাফিক । বাংলাদেশ পরিষদ সাহিত্য পুরষ্কার প্রাপ্ত কবি ও গীতিকার শফিকুল ইসলাম এর এই কাব্য গ্রন্থে মোট ৭৬টি কবিতা স্থান পেয়েছে ।

কবিতাগুলো খুবই সুন্দর সহজ সরল ভাষায় রচিত । কবিতা-রসিক মনের গভীরে গ্রথিত অনুভূতিকে সহজে নাড়া দেবার মত গদ্য ছন্দে রচিত কাব্য গ্রন্থটি । বিমূর্ত প্রতিকীর উপমার এক সিদ্ধহস্ত কবি ও গীতিকার শফিকুল ইসলাম জীবনে অনেক দেখেছেন ,অনেক লিখেছেন । এই গ্রন্থে তারই স্বাক্ষর রেখেছেন তিনি । ভাবের সাথে শব্দ বিন্যাস,শব্দ চয়ন সব কিছুই বাহুল্য বর্জিত । আধুনিক গদ্য কবিতার যে আঙ্গিক বৈশিষ্ট্য ,আন্ত পদের অমিল ,স্বরের ব্যঞ্জনায় অনুপ্রাসের উপস্থিতি কবিতাগুলোতে সৃষ্টি করেছে ভাবের স্রোত । অতএব, কোথাও কোন ছন্দপতন লক্ষ্য করা যায়নি । বিলম্বে হলেও সুন্দর কবিতার কাব্য রচনার যুগে আজন্ম পথিক কবি বলেছেনঃ–

“….এখানে আমি চিরদিন প্রবাসী
বিব্রত আগন্তুক।
ঐ উদার আকাশ,শ্যামল অরণ্য
ঐ বিস্তৃত প্রান্তর , বহতা নদী
ওরা আমার চিরচেনা,
জন্ম জন্মান্তরের পরিচিত,
ওখানেই আমার ঠিকানাবিহীন ঠিকানা
ওখানেই আমার ঘরহীন ঘর”।

কখনো কখনো জীবন নিয়ে কবির দ্বান্দ্বিক উচছাস । যার প্রতিফলন এভাবেঃ–

“দুঃখ আর আমার জীবন
হাত ধরাধরি করে চলছে পরষ্পর
উদ্দেশ্য বিহীন গন্তব্যের দিকে”।

পরবর্তী কবিতা “কিছু স্বপ্ন ছিল আমার ও” তে বলেছেনঃ–

“জীবন মানেই তো স্বপ্ন
যেখানে স্বপ্ন নেই, জীবন সেখানে অর্থহীন” ।

এভাবে অনেক জীবন ঘনিষ্ঠ বোধ বিশ্বাসে সুবিন্যস্ত বিবিধ কবিতায় ভরা”এই ঘর এই লোকালয়”। আখ্যান আঙ্গিকের এই কাব্যগ্রন্থে জীবনকে জানা-চেনার মধ্যপথেই কবি জীবনের মানসীর শুভাগমন । তাই তার যত ভাবনা প্রেয়সীর অতল অতলান্তিকের মাঝে । অতএব কবি বলেছেনঃ-

“আজকের এই রাত
মায়াবী এই রাত,রজনী জোছনা-মদির
আর আমার মুগ্ধ চোখের নীচে
শায়িত তোমার সুন্দর অবারিত দেহ
যেন আমার পানে চেয়ে
নীরব আমন্ত্রণ জানায়”।

আবার বিয়োগ যন্ত্রণায় কাতর কবি বলেছেনঃ–

“একদিন তুমি ছিলে
এই হৃদয়ে স্বপ্ন ছিল
আশা ছিল, ভালবাসা ছিল
আজ তুমি নেই
আজ কোন স্বপ্ন নেই,আশা নেই”….

কবি শফিকুল ইসলাম তার কল্পনার বলে মানস প্রতিমাকে বহুভাবে মুর্তমান করতে চেয়েছেন । গ্রন্থটি না পড়ে এর শুদ্ধ মধুরস আহরণ সম্ভব নয় । বর্তমানে পেশাগত জীবনে তিনি একজন বিসিএস প্রশাসনিক ক্যাডারের কর্মকর্তা । ব্যস্ততার মাঝে গান কবিতা লেখা তার জীবনের খোরাক । মনের স্বস্তি ফিরে পাওয়ার এক বিশেষ মাধ্যম। ভালোবাসার এক বিশাল অন্তরের মানুষ কবি শফিকুল ইসলামের বিরহ যন্ত্রণা কম নয়। তাই কবি বলেছেনঃ-

“তোমার বাগানে ফুল ফুটিয়ে আমি চলে যাব
দূরের আকাশের পাখী
তোমর জন্য রেখে যাব রঙ সুরভি
আর আমার জন্য নিয়ে যাব কাটার জ্বালা”….

এভাবেই অসীম অমানিশার অধিকার সমাধিস্থল হয় প্রতিটি প্রেমাকুল প্রেমিক মানুষের জীবনের শেষ গন্তব্য। কবি শফিকুল ইসলামের প্রথম কাব্যগ্রন্থ “এই ঘর এই লোকালয়” একটি মার্জিত জীবন-ঘনিষ্ঠ কাব্যগ্রন্থ। শব্দ সংযমী এ কবির কবিতায় বাহুল্য শব্দের প্রয়োগ নেই । নিরীক্ষা প্রয়াসী গদ্য কবিতায় তিনি ভবিষ্যতে আরো লিখবেন মনে হচেছ। শব্দ নির্বাচন, পঙক্তি বিন্যাস,প্রতীক উপমা উপস্থাপন- খুবই সুন্দর। যাপিত জীবনের আত্মিক অনুভূতির প্রকাশ গ্রন্থটিতে অসীম ব্যঞ্জনায় অমিত সম্ভাবনার দ্যুতি ছড়িয়েছে ।

 

1375 জন পড়েছেন

About এস ইসলাম

প্রাক্তন মেট্রোপলিটান ম্যাজিষ্ট্রেট কবি শফিকুল ইসলাম বর্তমানে বাংলাদেশ সরকারের উপসচিব। বাংলাদেশ বেতার ও টেলিভিশনের গীতিকার। সাহিত্য ক্ষেত্রে অবদানের জন্য 'বাংলাদেশ পরিষদ সাহিত্য পুরষ্কার' ও 'নজরুল স্বর্ণ পদক' প্রাপ্ত হন। প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ:- 'তবু ও বৃষ্টি আসুক',শ্রাবণ দিনের কাব্য',মেঘভাঙা রোদ্দুর' ও'দহন কালের কাব্য'। visit: http://www.somewhereinblog.net/blog/sfk505

Comments are closed.