নদীর ভূবনে আমার হলো না যাওয়া

2857 জন পড়েছেন

অনেক দূর হেঁটেছি কাক ডাকা ভোর থেকে
তবু যাওয়া হলো না নদীর ভূবনে ।

আঙিনা পেরিয়ে কুয়া তেজী পুরুষের কল্যাণে ক্ষয়ে যাওয়া
এবড়ো থেবড়ো পাড় লতা পাতায় ঢাকা ঝোপ জঙ্গল
দাদা দাদীর কবর আঁধার জলাশয় বিবর্ণ মাট
মাঠের হৃদয় ফুঁড়ে কালি মন্দির এক পায়ে দাঁড়িয়ে
প্রহর কাটায় । মন্দিরের গা ঘেঁষে সতিনের পুকুর
আউলা বাতাসে ঝড় তোলে মাঝে মাঝে রক্ত জরায় ।

কালো জলে একাকার সতিনের পুকুর পেছনে ফেলে
এগোলে
ভেলুয়ার মরা গাং । গাঙ্গের পাড় ধরে আঁকাবাঁকা রাজপথ
প্রধান ফটক নদীর আপন ভূবন । ভুবনের উপকন্ঠে
নদীর ছায়া নিশিদিন রঙ খেলায় মেতে রয় ।

অনেক দূর হেঁটেছি তবু নদীর ছায়া
পেরিয়ে
যাওয়া হলো না নদীর ভূবনে । নদী কি
সঙ্গীহীন নাকি স্বসঙ্গ প্রহর কাটায়?

আঙিনা পেরিয়ে কুয়া শান বাঁধানো ঘাট সতীনের পুকুর
দখিন সাগর সন্ধ্যা লাগ লাগ বাজুতে পড়েছি মাদুলী তবু
যাওয়া হলো না নদীর ভূবনে ।

ভূবনের উপকন্ঠে
বারবার হাজির হই সোনার কাঁকন নিয়ে
নদী তবু খোলে না দুয়ার
আমার যাওয়া হলো না আলোর ভূবনে ।

Facebook Comments

2857 জন পড়েছেন

About মফিজুল ইসলাম খান

মফিজুল ইসলাম খান পিতা-মৃত আব্দুল মন্নাফ খান । মাতা-সাফিয়া খাতুন । জন্ম- ০৪-০৯-১৯৫৪ । জন্মস্থান-ঘিলাতলী, বিবির বাজার, কুমিল্লা। শিক্ষাগত যোগ্যতা-এমকম,এলএলবি । একটি জাতীয়করণকৃত ব্যাংকের ডিজিএম (অবঃ)। বর্তমানে আইনজীবী । বসবাস-ঢাকায় । ইতিপূর্বে প্রকাশিত কবিতার বই-আন্দোলিত প্রান্তরে আহত চিৎকার, জোসনার ফুল, যন্ত্রণার অনুলিপি । ছড়ার বই-তাক ডুমাডুম ঢোল বাজে । ছড়া-কবিতার বই-আবোল তাবোল । উপন্যাস-মিসকল মফিজ । যৌথ- কবিতার বই-কোমল গান্ধার । যৌথ শিশুতোষ গ্রন্থ-খেঁকশিয়াল ফুলপরী ও বাজপাখীর গল্প ।

Comments

নদীর ভূবনে আমার হলো না যাওয়া — ১ Comment