স্রষ্টা ও সৃষ্টির একক সম্পর্ক

303 জন পড়েছেন

খোদার সাথে মানুষের সম্পর্ক রূপকতায় এক পবিত্র সম্পর্ক বলা যায়। মানুষ আবহমানকাল থেকে খোদার ধারণা পোষণ করে, তাকে নিয়ে চিন্তা করে, বিশ্ব জগত নিয়ে ভাবে। তার এই সম্পর্ক সামাজিক ধর্ম থেকে আলাদা হতে পারে। সামাজিক ধর্মের মূল বাস্তবতা যা’ই হোক ব্যক্তির স্রষ্টা সম্পর্কিত সাধনা  মিথ্যা হওয়ার কথা নয়।
মানুষ যেসব ধর্মে জন্ম গ্রহণ করে, সেখানে তার কোন হাত থাকে না, তার কোন ইচ্ছা থাকে না, কেননা সে কোন দেশে, কোন জাতিতে, কোন ভাষায়, কোন ধর্মে জন্ম নেবে সেই সিদ্ধান্ত সে নিজেই নিতে পারে না। জন্মের পরে মা-বাপের ঘরে বড় হয়, তাদের ধর্ম তার ধর্ম হয়, তাদের জাত-পাত তার জাত-পাত হয়, এভাবেই। তবে সে নিজে চিন্তা-ভাবনা করে খোদার ব্যাপারে কিছু মৌলিক সিদ্ধান্তে উপনীত হতে পারে এবং নিজ ধারণার ভিত্তিতে খোদার সাথে তার সম্পর্ক গড়তে পারে।
বাস্তব জগতের নিয়মে কেউ ইয়াহুদি, কেউ খৃষ্টিয়ান, কেউ হিন্দু, কেউ শিয়া মুসলিম, কেউ সুন্নি মুসলিম, কেউ বাহায়ি, কেউ কাদিয়ানী, কেউ নবি এলিজা মুহম্মদের উম্মত এভাবেই দুনিয়ায় আসা। এখানে কারও সিদ্ধান্ত অগ্রেই কার্যকরী নয়। সম্রাট আকবর যদি তার দীনে এলাহি প্রতিষ্ঠা করতে পারতেন, তবে আমরা অনেকে আজ তার নামে হয়ত সল্লাল্লাহ পড়তাম; দীনে এলাহির অনেক মাদ্রাসা থাকত, সেখান থেকে আলিম-উলামা বেরিয়ে আসতেন, এবং তাদের মধ্যে অনেক বড় বড় বুজুর্গ থাকতেন, যেমন শিয়া, সুন্নি, বাহায়ি, কাদিয়ানী, হিন্দু, খৃষ্টিয়ান ইত্যাদি ধর্মে আছেন। কিন্তু এই দুনিয়ায় যত ধর্ম আছে সব ধর্মই অন্য ধর্মের দৃষ্টিতে মিথ্যা ধর্ম এবং সব ধর্মই মানুষের পৈতৃক ধর্ম। মানুষ পৈতৃকসূত্রে সেখানে জন্মে, এটাই হয়ে পড়ে তার সত্য ধর্ম, এতে তার কোন হাত থাকে না। অধিকন্তু বড় হয়ে এটাই প্রচার করে, এর পিছনে যুক্তি সাজায়, এপোলজি দেয়, যুদ্ধ-জেহাদও করে, কেননা এই ধর্ম তার মাথাকে সমাজসূত্রে এভাবেই গড়ে তোলে।
 
তবে সামাজিক ধর্ম যা’ই হোক, এক সময় মানুষ তার নিজ জ্ঞান বুদ্ধির ভিত্তিতে ধর্ম নিয়ে চিন্তা করতে পারে, খোদা নিয়ে চিন্তা করতে পারে এবং খোদার সাথে তার সম্পর্ক নিজ জ্ঞানের ভিত্তিতে গড়ে তুলতে পারে। এই সম্পর্কই হতে পারে তার নিজ সাধনার ধন, তার নিজ জ্ঞানের ফসল, সে এই জগতে এসেছিল, এবং নিজের চোখে দেখেছিল, নিজের পঞ্চেন্দ্রিয় ব্যবহার করেছিল, নিজের মাথা, বুদ্ধি বিবেক ব্যবহার করেছিল এবং এসবের ভিত্তিতেই তার খোদা, তার পরমাত্মার সাথে সম্পর্ক গড়েছিল –এটা অবশ্যই একটি মহান সাধনা।

অন্যান্য লেখা

প্রোটো ধর্ম ও প্রাতিষ্ঠানিক ধর্ম

দেওয়ানবাগী ও সামাজিক সত্যের এপিঠ ওপিঠ

কোন আলোচনা কী আক্রোশবিহীন ও কুফুরি-বিবর্জিত হতে পারে না?

মানবাধিকার ও সভ্যতা

দোয়া ও ধর্ম

ধর্মীয় সত্য প্রচারে কী মিথ্যার সংমিশ্রণ হতে পারে?

এনলাইটনমেন্ট: গণতন্ত্র ও ধর্মনিরপেক্ষতা

বস্তু জগত তার আপন নিয়মে চলে

সভ্যতা কী?

মানুষ মানুষের জন্য

Facebook Comments

303 জন পড়েছেন

About এম_আহমদ

প্রাবন্ধিক, গবেষক (সমাজ বিজ্ঞান), ভাষাতত্ত্ব, ধর্ম, দর্শন ও ইতিহাসের পাঠক।

Comments are closed.